সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:২৩ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
“স্বাধীনবাংলা” টেলিভিশন (IP tv) পরিক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে । “ স্বাধীনবাংলা টেলিভিশন” এ দেশের সকল জেলায় প্রতিনিধি নিযুক্ত করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীগন সিভি পাঠান এই ঠিকানায়ঃ cv.shadhinbanglatv@gmail.com, Android Apps on Google Play থেকে ডাউনলোড করতে Shadhin Bangla Television লিখে সার্চ করুন ***

আজ বাঙালি জাতির ইতিহাসে রক্তের অক্ষরে লেখা গৌরবোজ্জ্বল ৫২তম মহান  ২৬শে মার্চ

বাঙালি জাতির ইতিহাসে রক্তের অক্ষরে লেখা গৌরবোজ্জ্বল ৫২তম মহান  ২৬শে মার্চ

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ

বাঙালি জাতির ইতিহাসে রক্তের অক্ষরে লেখা গৌরবোজ্জ্বল ২৬শে মার্চ আজ। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। উনিশশো একাত্তরের এই দিনে সূচনা হয়েছিল রক্তস্নাত মুক্তিযুদ্ধের। যুগ-যুগান্তরের শোষণ-বঞ্চনার শাপমুক্ত হওয়ার যাত্রা শুরুর এই দিনে ত্রিশ লাখ শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধাবনত জাতি।

একাত্তরের পহেলা মার্চ থেকেই বিক্ষোভে উত্তাল ঢাকার রাজপথ। দেশের মানচিত্র খচিত পতাকা উড়ানো, স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠ ও জাতীয় সঙ্গীত নির্ধারণ। স্বাধীকার আন্দোলন রূপ নেয় স্বাধীনতা অর্জনের পথে।

৭ই মার্চের ভাষণে স্বাধীনতাকামী জাতিকে স্বাধীনতার পূর্ণ দিক নির্দেশনা দেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। কিন্তু সেদিনই সরাসরি স্বাধীনতা ঘোষণা দেননি দূরদর্শী বঙ্গবন্ধু। ৭ই মার্চের পর দ্রুতই পাল্টাতে থাকে প্রেক্ষাপট। স্বাধীনতাকামী মানুষের স্ফুলিঙ্গ সহ্য করতে না পেরে তাদের চিরতরে স্তব্ধ করে দিতে ২৫শে মার্চ রাতে গণহত্যা শুরু করে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী।

অপারেশন সার্চ লাইটের নামে হানাদাররা শুরু করে গণহত্যা। ২৬শে মার্চের প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণার পর শুরু হয় মুক্তিযুদ্ধ। শুরু হয় প্রতিরোধ। নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে ত্রিশ লাখ মানুষের আত্মোৎসর্গের মধ্য দিয়ে ষোলোই ডিসেম্বর ধরা দেয় পরমারাধ্য বিজয়।  ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিশ্বের মানচিত্রে নতুন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ ঘটেছিল একটি ভূখণ্ডের, যার নাম বাংলাদেশ।

 

এসবিএন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


আমাদের ফেসবুক পেইজ