বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:০৬ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
“স্বাধীনবাংলা” টেলিভিশন (IP tv) পরিক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে । “ স্বাধীনবাংলা টেলিভিশন” এ দেশের সকল জেলায় প্রতিনিধি নিযুক্ত করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীগন সিভি পাঠান এই ঠিকানায়ঃ cv.shadhinbanglatv@gmail.com, Android Apps on Google Play থেকে ডাউনলোড করতে Shadhin Bangla Television লিখে সার্চ করুন ***

বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শন শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকার উদ্দেশে রওনা

বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শন শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকার উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ

টানা ভারী বর্ষণ এবং ভারতের মেঘালয় থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেট ও সুনামগঞ্জসহ দেশের অনেক জেলায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় আটকে আছে। বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শনে হেলিকপ্টারে সিলেটে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে হেলিকপ্টারযোগে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি। এর আগে হেলিকপ্টার থেকে সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোণার বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেছেন তিনি।

আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টায় বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শনের উদ্দেশে তেজগাঁওয়ের পুরাতন বিমানবন্দর থেকে হেলিকপ্টারযোগে তিনি যাত্রা শুরু করেন।

সিলেট সার্কিট হাউসে উপস্থিত নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খাদ্যমন্ত্রীকে আগে থেকে বলেছিলাম এবার বন্যা আসবে। খাদ্য গুদামে পানি আসতে পারে। তাই সার এবং খাদ্য গুদাম রক্ষা করার কথা বলা হয়েছে। এবার বন্যা দেরিতে এসেছে। বন্যা আসলে এমন দু-তিনবার করেই আসে। এটাই প্রকৃতির খেলা। তবে সিলেটের এটা অস্বাভাবিক পরিস্থিতি। প্রতিবার বন্যায় নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। বন্যায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ’

শেখ হাসিনা জানান, দুর্যোগ কমিটির সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। শুকনা খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ওষুধ, খাবার পানি সব সরবরাহ করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আষাঢ় মাসে এই অঞ্চলে বন্যা হলো। এরপর মধ্য ও দক্ষিণ অঞ্চলে বন্যা হবে। সেভাবেই প্রস্তুতি রাখতে হবে। ’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সিলেট, সুনামগঞ্জ অঞ্চলে উঁচু করে রাস্তা বানানো যাবে না। এসব অঞ্চলে এলিভেটেড রাস্তা হবে। এতে রাস্তা আর নষ্ট হবে না। দুর্যোগ এলেও সুবিধা পাওয়া যাবে। এছাড়া, নদীর বৈশিষ্ট্য মাথায় রেখে ড্রেজিং করতে হবে। ক্যাপিটেল ড্রেজিং প্রতিবছর করতে হবে। ’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার ও বিরোধী দল সব অবস্থায় সবার আগে দুর্গত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে যায়। আমি বন্যাপ্রবণ এলাকার মানুষ। বন্যায় আমাদের বসবাস। আমি বন্যাকবলিত মানুষের কষ্ট বুঝি।

সিলেটে বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে হযরত শাহজালাল (র.) ও হযরত শাহপরানের (র.) মাজার জিয়ারত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মাজার জিয়ারত শেষে তাকে বহনকারী গাড়ি ওসমানী বিমানবন্দরে উদ্দেশে রওয়ানা হয়। সেখান থেকে তাকে বহনকারী হেলিকপ্টার ঢাকার উদ্দেশে রওনা দিয়েছে।

 

এসবিএন/ এউরি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


আমাদের ফেসবুক পেইজ