সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
“স্বাধীনবাংলা” টেলিভিশন (IP tv) পরিক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে । “ স্বাধীনবাংলা টেলিভিশন” এ দেশের সকল জেলায় প্রতিনিধি নিযুক্ত করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীগন সিভি পাঠান এই ঠিকানায়ঃ cv.shadhinbanglatv@gmail.com, Android Apps on Google Play থেকে ডাউনলোড করতে Shadhin Bangla Television লিখে সার্চ করুন ***

বেড়েছে আদা-কাঁচামরিচের দাম, কমেছে সয়াবিন-পেঁয়াজের

স্বাধীনবাংলা, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

সিলেটে কেজিপ্রতি পাঁচ টাকা করে কমেছে পেঁয়াজের দাম। সেইসঙ্গে লিটারে ১৪ টাকা কমেছে সয়াবিন তেলের দর। এছাড়া নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার তালিকায় যোগ হয়েছে চাল, ডাল, কাঁচামরিচ, আলু ও আদার নাম। কাঁচামরিচ ছাড়া প্রতিটি পণ্যের দাম বেড়েছে কেজিতে পাঁচ টাকা করে। তবে কাঁচামরিচের দাম কেজিতে বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা। এছাড়া সব ধরনের সবজির বাজার প্রায় স্থিতিশীল রয়েছে।

শনিবার (৩০ জুলাই) বাজার ঘুরে দেখা গেলো, পেঁয়াজের দাম কেজিতে কমেছে পাঁচ টাকা করে। গত সপ্তাহেও প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকায়। আজ এই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৫ টাকায়। হাঁসের ডিমে ডজনে দাম কমেছে ১৫ টাকা। আর সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে সরকার নির্ধারিত ১৮৫ টাকা লিটার দরে। তবে গত সপ্তাহ পর্যন্ত প্রতি লিটার সয়াবিন বিক্রি হয়েছে ১৯৯ টাকা দরে। এ হিসাবে দাম কমেছে প্রতি লিটারে ১৪ টাকা।

সিলেট নগরের আম্বরখানা, বন্দরবাজার, রিকাবীবাজার, মেডিকেল রোড, কাজিরবাজর, কালিঘাটসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে নিত্যপণ্যের দরদামের এমন চিত্র দেখা গেছে।

মেডিকেল রোডের লিবার্টি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের মালিক আলমগীর হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম কেজিতে পাঁচ টাকা করে কমেছে। এলসির ভালোমানের পেঁয়াজ গত সপ্তাহে ছিল ৪০ টাকা কেজি। এ সপ্তাহে ওই পেঁয়াজ বিক্রি করছি ৩৫ টাকা দরে। তবে সুপার মালা ও জিরা সিদ্ধসহ সব ধরনের চালের দর কেজিতে বেড়েছে পাঁচ টাকা করে। গত সপ্তাহে যে সুপার মালা চাল ৫৪ টাকা কেজি বিক্রি হয়েছে, সেই চাল এখন ৫৯ টাকা এবং ৭০ টাকার জিরা সিদ্ধ এখন ৭৫ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

তিনি জানান, চায়না আদা গত সপ্তাহে ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও এ সপ্তাহে ১০ টাকা বেড়ে ১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। ছোট-বড় সব ধরনের মসুর ডালের কেজিতে বেড়েছে পাঁচ টাকা করে।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, মাছ, গরুর মাংসের দাম বর্তমানে স্থিতিশীল রয়েছে। গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহেও গরুর মাংস ৬৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রতি কেজি খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭৫০ টাকা দরে। তবে গরু ও খাসির কলিজা বিক্রি হচ্ছে ৭০০ টাকা কেজিতে।

 

এদিকে, বর্ষায় সরবরাহ কিছুটা কমে আসায় দুই-একটি সবজির বাজারদর চার থেকে পাঁচ টাকা বেড়েছে। নগরের কাজিরবাজারের সবজি বিক্রেতা সুজেল আহমদ বলেন, বাজারে সবজির দাম স্থিতিশীল রয়েছে। তবে বেশ কিছুদিন ধরে বাড়ছে কাঁচামরিচ ও ধনিয়া পাতার দাম। গত সপ্তাহে কাঁচামরিচের কেজি ১৫০ টাকায় বিক্রি হলেও এই সপ্তাহে কাঁচামরিচ প্রতি কেজি ১৯০ থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি করতে হচ্ছে। এখানে আমাদের কিছু করার নেই।

মেডিকেল রোডের সবজি বিক্রেতা মো. রহম আলী জানান, এই বর্ষায়ও সবজির বাজার স্থিতিশীল রয়েছে। প্রতি হালি কাঁচকলা ২৫/৩০ টাকা, প্রতি কেজি বেগুন ৪০ টাকা, পেঁপের কেজি ২৫/৩০ টাকা, আমড়া ৩০/৩৫ টাকা কেজি, টমেটোর কেজি ১০০ টাকা, কাঁচামরিচ ২০০ টাকা, ঢেঁড়স ৩০ টাকা কেজি, ঝিঙা ৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৩০/৩৫ টাকা কেজি, করলা ৪০ টাকা কেজি, প্রতি কেজি মুলা ৩০ টাকা, পাতা কপির কেজি ৫০ ও প্রতি কেজি শসা ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় উপ-পরিচালক মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, কেউ যাতে নিত্যপণ্য অতিরিক্ত দরে বিক্রি করতে না পারে সেজন্য আমাদের একাধিক দল বাজার তদারকি করছে। তদারকি আগামীতে আরও বাড়ানো হবে।

 

এসবিএন / এউরি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


আমাদের ফেসবুক পেইজ