মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
“স্বাধীনবাংলা” টেলিভিশন (IP tv) পরিক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে । “ স্বাধীনবাংলা টেলিভিশন” এ দেশের সকল জেলায় প্রতিনিধি নিযুক্ত করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীগন সিভি পাঠান এই ঠিকানায়ঃ cv.shadhinbanglatv@gmail.com, Android Apps on Google Play থেকে ডাউনলোড করতে Shadhin Bangla Television লিখে সার্চ করুন ***

‘১০ বছরেও মামলার আপিল শুনানি শুরু না হওয়া লজ্জাজনক’- আপিল বিভাগ

'১০ বছরেও মামলার আপিল শুনানি শুরু না হওয়া লজ্জাজনক'- আপিল বিভাগ

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ

১০ বছরেও একটি মামলার শুনানি শুরু না হওয়া লজ্জাজনক বলে হতাশা জানিয়েছে আপিল বিভাগ। সকালে বেদখল হওয়া জমি ফেরত চেয়ে করা মামলার এ হতাশা জানিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

যাদের মূল ভিটে, আগে তাদের কথা ভাবতে হবে উল্লেখ করে প্রধান বিচারপতি বলেন, একজনের ভিটে-বাড়ি, অন্য কেউ দখল করলে দেশে দেশে আদালত থাকার দরকার কি? রাজধানীর মগবাজারে একটি অর্পিত সম্পত্তি দখলে নেয় বিসিএস প্রশাসন কল্যাণ বহুমুখী সমবার সমিতি। যেটির দাবিদার একজন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার। বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ কমান্ডারের জায়গা অর্পিত সম্পত্তি হিসেবে সরকারের অধিগ্রহণ অবৈধ ঘোষণার রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিলের শুনানিতে আদালত এ মন্তব্য করেন।

আরও পড়ুনঃ চাঁদ দেখা যাওয়ায় আজ তারাবী নামাজ আদায়, কাল থেকে রোজা শুরু

শুনানির এক পর্যায়ে আপিল বিভাগ বলেন, যাদের মূল ভিটে-বাড়ি, আগে তাদের কথা ভাবতে হবে। একজনের ভিটে-বাড়ি নিয়ে যাবেন, আমরা চোখ বন্ধ রাখব, তাহলে দেশে কোর্ট-কাচারি থাকার দরকার কী? এ বিষয়ে আমরা চোখ বন্ধ করে থাকতে পারি না। পরে আদালত এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির জন্য আগামীকাল (সোমবার) দিন ধার্য করেন।

রিটকারীদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আওসাফুর রহমান বলেন, রাজধানীর মগবাজারের সাড়ে ১৯ শতাংশ জায়গার প্রকৃত মালিক বীরেন্দ্র কুমার নাথ। ১৯৪০ সালে আম মোক্তারনামা মূলে এই জায়গা সিরাজ কমান্ডারকে দিয়ে তিনি ভারতে চলে যান। সিরাজ কমান্ডার এই জায়গার হোল্ডিং ট্যাক্স, বিদ্যুৎ বিল, পানির বিল পরিশোধ করে তার নামে মিউটেশন করে খারিজ করে নেন। জায়গার খাজনাও পরিশোধ করেন। সেখানে স্ত্রী সন্তানসহ বসবাস করতে থাকেন।

আওসাফুর রহমান আরও বলেন, ২০১০ সালের শেষের দিকে ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্দেশে পুলিশ তাদেরকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে। পরে তারা জানতে পারেন এ জায়গা অর্পিত সম্পত্তি হিসেবে অধিগ্রহণ করে বিসিএস প্রশাসন কল্যাণ বহুমুখী সমবায় সমিতিকে দেওয়া হয়েছে। ওই বছরই জায়গা অধিগ্রহণ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন সিরাজ কমান্ডারের সন্তানরা। রিটের শুনানি নিয়ে ২০১২ সালে হাইকোর্ট অধিগ্রহণ অবৈধ ঘোষণা করেন। হাইকোর্টের এ রায়ের বিরুদ্ধে ২০১২ সালে লিভ টু আপিল করে সরকার। সেই লিভ টু আপিল শুনানি চলছে।

 

এসবিএন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


আমাদের ফেসবুক পেইজ