বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১০:৪৪ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
“স্বাধীনবাংলা” টেলিভিশন (IP tv) পরিক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে । “ স্বাধীনবাংলা টেলিভিশন” এ দেশের সকল জেলায় প্রতিনিধি নিযুক্ত করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীগন সিভি পাঠান এই ঠিকানায়ঃ cv.shadhinbanglatv@gmail.com, Android Apps on Google Play থেকে ডাউনলোড করতে Shadhin Bangla Television লিখে সার্চ করুন ***

২৬ ন‌ভেম্বর জাতীয় পার্টির কাউন্সিলের ডাক- রওশন এরশাদ

স্বাধীনবাংলা, স্টাফ রির্পোটারঃ

আবারও ভাঙনের শঙ্কা তৈরি হয়েছে জাতীয় পার্টিতে। আগামী ২৬ ন‌ভেম্বর জাতীয় পার্টির কাউন্সিলের ডাক দিয়েছেন দলটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও বিরোধীদলের নেতা রওশন এরশাদ। তবে দলটির চেয়ারম্যন জিএম কাদের দাবি করেছেন এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না।

নিজের স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কাউন্সিলের ডাক দেন রওশন এরশাদ। এর জন্য তিনি একটি আহ্বায়ক কমিটিও গঠন করেছেন।

তবে জি এম কাদের এক বিবৃতিতে বলেছেন, রওশন এরশাদ যে আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করেছেন, তা সম্পূর্ণ অবৈধ, অনৈতিক ও গঠনতন্ত্র পরিপন্থী। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক কমিটি গঠন ও কাউন্সিল ঘোষণার কোনো এখতিয়ার নেই জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষকের।

রওশন এরশাদের করা কমিটিতে দ‌লের মহাসচিব মু‌জিবুল হক চুন্নুসহ কো-চেয়ারম্যানদের যুগ্ম আহ্বায়ক করা হ‌য়ে‌ছে। প্রস্তুতি ক‌মি‌টির আহ্বায়ক হ‌য়ে‌ছেন বি‌রোধীনেতা বেগম রওশন এরশাদ নিজেই। কমি‌টির যুগ্ম আহ্বায়করা হ‌লেন- দ‌লের কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, সা‌বেক মহাস‌চিব রুহুল আমিন হাওলাদার, কাজী ফিরোজ রশীদ, আবু হোসেন বাবলা, সালমা ইসলাম। ক‌মি‌টির সদস‌্য স‌চিব করা হ‌য়ে‌ছে বি‌রোধী নেতার রাজনৈতিক সচিব ও এরশাদ মুক্তি পরিষদের সাবেক সভাপতি গোলাম মসীহ্কে।

নেতাকর্মী‌দের উদ্দেশে লেখা চি‌ঠি‌তে বি‌রোধী নেতা ও দল‌টির অন‌্যতম প্রতিষ্ঠাতা বেগম রওশন এরশাদ শাহ মোয়াজ্জম হো‌সেনসহ ত্যাগী নেতা‌দের ফি‌রি‌য়ে এনে নতুন প্রজন্মের সমন্ব‌য়ে, নতুন নেতৃ‌ত্বে এক‌টি শ‌ক্তিশালী জাতীয় পা‌র্টি গঠ‌নের আহ্বান জানান।

রওশন এরশাদের দাবি জাতীয় পার্টির গঠনতান্ত্রিক লক্ষ্য-উদ্দেশ্য, নিয়মাবলী এবং পার্টির মূল আদর্শ সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হচ্ছে না। বর্তমানে পার্টি গঠনতান্ত্রিক গৃহীত আদর্শ, নিয়ম ও নীতিমালা থেকে সরে গিয়ে ভ্রান্তপথে অগ্রসর হচ্ছে- এমনটাও চিঠিতে উল্লেখ করেন বেগম এরশাদ। তিনি আরও বলেন, সাংগঠনিকভাবে তৃণমূলের কর্মীদের মতামতের ভিত্তিতে যোগ্যতর নেতৃত্ব নির্বাচন এবং বিপরীত গোষ্ঠীর অসৎ আয়ের বিনিময়ে নেতৃত্বপ্রদান এবং ত্যাগী নেতাকর্মীদের বসিয়ে দেওয়ার প্রবণতা জাতীয় পার্টির ঘোষিত নীতির বিপরীত।

তবে জিএম কাদের তার বিবৃতিতে বলেছেন, কাউন্সিলে গঠিত একটি বৈধ কমিটি ভেঙে দেয়ার কোন ক্ষমতা জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ছাড়া আর কারো নেই। শুধু জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান আহ্বায়ক কমিটি গঠন এবং জাতীয় কাউন্সিল আহ্বান করতে পারেন। জাতীয় পার্টির গনতন্ত্রের ধারা ১২, উপধারা ১/২ অনুযায়ী কাউন্সিলের তারিখ, স্থান ও সময় প্রেসিডিয়াম কর্তৃক নির্ধারিত হবে। তাছাড়া, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান যিনি প্রেসিডিয়াম এরও সভাপতি কর্তৃক কাউন্সিল অনুষ্ঠানের অনুমোদন প্রয়োজন হবে। এর বাইরে কারো কাউন্সিল আহ্বানের এখতিয়ার নেই।

তাছাড়া জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি এবং অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি আহ্বায়ক কমিটি গঠন ও জাতীয় পার্টির কাউন্সিল ঘোষণার বিষয়ে অবগত নন বলে বিবৃতিতে দাবি করা হয়।

 

এসবিএন/ এউরি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


আমাদের ফেসবুক পেইজ